আর্কাইভ

১ বছরের মেয়াদসহ ফ্রি এন্টিভাইরাস ডাউনলোড করুন

এক বছরের মেয়াদসহ ও সিরিয়াল কী সহ AVAST Antivirus ডাউনলোড করতে নিচের লিঙ্কে ক্লিক করুন।
https://www.box.net/shared/bec7vuewau9ok86vfypd

শীঘ্রই প্রথম লটারীর দশ হাজার কর্মী যাবে মালেশীয়া । এ মাসেই মেডিকেল টেষ্ট শুরু

মালয়েশিয়া যেতে ইচ্ছুক বিএমইটি’র ডাটাবেইজে রক্ষিত আরো ১০ হাজার কর্মীর মেডিকেল টেস্ট শুরু হচ্ছে। মালয়েশিয়া সরকার এ সংখ্যক কর্মীদের মেডিকেল টেস্ট রিপোর্টসহ আনুষঙ্গিক তথ্যাদি দ্রুত পাঠানোর জন্য জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোকে অনুরোধ জানিয়েছে। সে অনুযায়ী গমনেচ্ছুদের মেডিকেল টেস্ট করার জন্য দেশের ৯টি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকে নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। আর এটি রমজান মাসেই শুরু করা হচ্ছে। কর্মীদের ওজন কমপক্ষে ৫০ কেজি হতে হবে বলে শর্তে বলা হয়েছে। জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষন ব্যুরো মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) শামছুন নাহার স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে স্বাস্থ্য অধিপ্তরের মহাপরিচালককে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। মালয়েশিয়া গমনেচ্ছুকর্মীদের মেডিকেল টেস্ট করানোর সার্বিক দিক নিয়ে রোববার হাসপাতালগুলোর পরিচালকদের নিয়ে বৈঠক করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। রমজানেই এ মেডিকেল টেস্ট শুরু হবে বলে বাংলানিউজকে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডা. বেনজির আহমেদ। এর আগে ১০ হাজার কর্মীর মেডিকেল টেস্ট ৯টি মেডিকেল কলেজেরে মাধ্যমে সম্পন্ন হয়। রিপোর্ট পেন্ডিং না রেখে এবার চূড়ান্ত মেডিকেল টেস্ট রিপোর্টই দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। আর পরীক্ষা ফি বাবদ জনপ্রতি সর্বোচ্চ ৩,৫০০/- তিন হাজার ৫’শ টাকা নেওয়া যাবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। মেডিকেল টেস্টের শর্তগুলোতে এবার বলা হয়েছে, গমনেচ্ছুকর্মীদের উচ্চতা কমপক্ষে ৫ ফুট হতে হবে, ওজন হতে হবে কমপক্ষে ৫০ কেজি, বয়স ১৮ থেকে ৪৫ বছরের মধ্যে এবং ২৫ কেজি ভার নিয়ে ১০ ফুট দূরত্ব অতিক্রম করার ক্ষমতা থাকতে হবে। রোববারের বৈঠকে বরিশাল ও খুলনা মেডিকেল কলেজের পরিচালকরা, তাদের হাসপাতালে যন্ত্রপাতিসহ সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধির জন্য বলেছেন। এছাড়াও এ বাড়তি কর্মকাণ্ড সম্পাদনের জন্য হাসপাতালগুলো চুক্তিভিত্তিক বাড়তি লোকবল নিয়োগ করতে পারবে বলে বলা হয়েছে। রমজানে কর্মঘণ্টা কম থাকায় দিনে ২৫ থেকে ৩০ জন এবং পরবর্তীতে ৬০ জন পর্যন্ত কর্মীর মেডিকেল টেস্ট করানো যাবে বলে জানিয়েছেন পরিচালকরা। উল্লেখ্য, জি-টু জি পদ্ধতিতে মালয়েশিয়াতে বাংলাদেশ সরকার কর্মী পাঠাচ্ছে

ইতিপূর্বে রেজিষ্টেশনকৃত লটারী বিজয়ী থেকে- “মালয়েশিয়ার জন্য আরো ১১ হাজার ৭০৪ জন নির্বাচিত”

মালয়েশিয়ায় সরকারিভাবে গভর্মেন্ট টু গভর্মেন্ট (জিটুজি) জনশক্তি রপ্তানির জন্য দ্বিতীয় পর্যায়ের লটারির মাধ্যমে আরো ১১ হাজার ৭০৪ বাংলাদেশি নাগরিককে নির্বাচিত করা হয়েছে।বিভাগওয়ারী লটারির ফল হচ্ছে-

                                     ঢাকায়- ৩৬৩৮,                                                 চট্টগ্রামে- ২২৪৫,

                                     খুলনায় -১২৭৮,                                                 রাজশাহীতে- ১৫৫১,

                                     বরিশালে-৭৫৮,                                                   সিলেটে- ৮৭৩

                                     রংপুরে- ১৩৬১ জন।

বুধবার রাজধানীর ইস্কাটনস্থ প্রবাসীকল্যাণ ভবনে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান বিষয়কমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের উপস্থিতিতে এক সংবাদ সম্মেলনে এই ইলেকট্রনিক লটারি অনুষ্ঠিত হয়।উল্লেখ্য, এদিন দ্বিতীয় দফার লটারিতে ২৪ হাজার ২৮০ জনের মধ্য থেকে ১১ হাজার ৭০৪ জন নির্বাচিত হয়। ইতোপূর্বে প্রথম দফায় লটারির মাধ্যমে ১১ হাজার ৭৫৮ জনকে নির্বাচিত করা হয়েছিল। প্রথম পর্যায়ে লটারি বিজেতাদের মালয়েশিয়া যাওয়ার বিষয়টি বর্তমানে প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।মালয়েশিয়া সরকার তাদের প্লান্টেশন সেক্টরে কাজ করার জন্য প্রায় ৩০ হাজার বাংলাদেশিকে নিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করায় সরাসরি সরকারিভাবে জিটুজি পদ্ধতিতে মাত্র ৪০ হাজার টাকারও কম খরচে এই অভিবাসন প্রক্রিয়া চলছে। সারাদেশের ইউনিয়ন পর্যায় থেকে অনলাইনে ফর্মপূরণ করে স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় লটারির মাধ্যমে গমনেচ্ছু নির্বাচন করে চূড়ান্ত বাছাইয়ের পর মালয়েশিয়ায় এ জনশক্তি রপ্তানি করা হচ্ছে।

UISC থেকে হংকং ও সিঙ্গাপুরের জন্য আবেদনের সময় পরিবর্তন

সকল উদ্যোক্তা বন্ধুদের জানানো যাচ্ছে যে, UISC থেকে হংকং ও সিঙ্গাপুরের জন্য আবেদনের সময় পরিবর্তন করা হয়েছে আপনাদের সকলকে  নিচের উল্লেখিত তারিখ অনুযায়ী স্ব স্ব ইউনিয়ন থেকে আবেদন গ্রহণ করতে হবে।

৭-১১ এপ্রিল ২০১৩ (রাজশাহী, রংপুর ও সিলেট বিভাগ )

১২,১৩ ওএবং ১৫-১৭ এপ্রিল ২০১৩ ( খুলনা, চট্টগ্রাম)

১৮-২২ এপ্রিল ২০১৩ ( ঢাকা , বরিশাল )

রেজিস্ট্রেশন পূর্বে মালোয়েশিয়ার রেজিস্ট্রেশনের অনুরূপভাবে সম্পন্ন হবে। তাই সকলকে ভালভাবে প্রস্তুতি ও প্রচারের ব্যবস্থা নিতে হবে।

আমি বর্তমানে দেশের বাইরে থাকায় আমার অনুপস্থিতিতে এ বিষয়ে কোন তথ্য জানতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে যোগাযোগ করুন। মেইলে আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারেন(bappacse07@yahoo.com)

অথবা ফোন করুনঃ

রফিকুল ইসলাম, সহকারি প্রোগ্রামার, নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজ, মোবাইলঃ ০১৭২২৪৫৬৪২১

শেখ মোহাম্মদ ফয়সাল, সহকারি প্রোগ্রামার, নড়াইল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, মোবাইলঃ ০১৯১১০৭৩৩৪৩

অনলাইন জন্ম নিবন্ধনের সমস্যা হলে সমাধানের জন্য যোগাযোগ করুন

প্রিয় উদ্যোক্তা বন্ধুরা,

আপনারা অনলাইনে জন্ম নিবন্ধনের ক্ষেত্রে অনেক সময় সমস্যায় পড়েন। এক্ষেত্রে সমাধানের জন্য আপনারা প্রথমে আপনার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার শাখায় যোগাযোগ করবেন। সেখান থেকে সমাধান না পেলে নিচের লিঙ্কে ক্লিক করে ঢাকার জন্ম নিবন্ধকের প্রধান কার্যালয়ে যোগাযোগ করুন।

http://br.lgd.gov.bd/?q=contact

আশাকরি আপনাদের জন্ম নিবন্ধনের সমস্যা সমাধানের ক্ষেত্রে আর ভোগান্তি পোহাতে হবে না।